ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

আজানের সূচনা ও ফজিলত

যে রাতে মেরাজ সঙ্ঘটিত হয়, সে রাতেই পাঞ্জেগানা নামাজ ফরজ হয়। নামাজ ফরজ হওয়ার পরপর সাহাবাকেরাম রা: নামাজ আদায় করতে শুরু করেন। ইবনে ওমর রা: বলেন, তা প্রকাশ্যে জামায়াতবদ্ধভাবে নয়। কেননা তখন মুসলমানরা সংখ্যায় কম ছিল। মুসলমানদের শত্রু কাফের-মুশরিকরা ছিল সংখ্যায় বেশি।

বিস্তারিত পড়ুন …

অমুসলিমদের প্রতি ব্যবহার

ইসলাম ও মুসলমান সম্পর্কে একশ্রেণীর মানুষ বিভ্রান্তির সৃষ্টি করে। এতে কিছু নাদান মুসলমানও জড়িত। এ যে আত্মহত্যা, তা-ও তারা বুঝতে অক্ষম। আমরা জানি, অনেক পাশ্চাত্য পণ্ডিত ইসলাম ও মুসলমানদের নিয়ে বিষোদগার করেন। তবে লামারটাইন, টমাস কার্লাইন, ডেভেনপোর্ট, লেনপুল প্রমুখ বিদ্বান ইসলামের ব্যাপারে নিরপেক্ষভাবে উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন তাদের মহান গ্রন্থগুলোতে।

বিস্তারিত পড়ুন …

নামাজ ও ব্যক্তির শুদ্ধি

নামাজ সম্পর্কে সব মুসলমানেরই এতটুকু ধারণা তো অবশ্যই আছে যে, এটি ধর্মীয় অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি ফরজ দায়িত্ব। আজিমুশ্বান ইবাদত এটি। দ্বীনের বুনিয়াদ বা মূল স্তম্ভ নামাজ। কিন্তু একই সঙ্গে নামাজের গুরুত্বপূর্ণ একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে যে তা মানুষের ব্যক্তি সংশোধনে, তার আখলাকে চরিত্র তারবিয়্যাতে তারা অনন্য মহাপ্রতিষেধক।

বিস্তারিত পড়ুন …

অল্পে তুষ্টি ইসলামের অনুপম শিক্ষা

আমাদের জীবনে চাহিদার কোনো শেষ নেই। যার যত বেশি আছে, তার চাহিদা তত বেশি। হাদিসের ভাষ্য অনুযায়ী, মানুষের মুখে মাটি পড়া পর্যন্ত চাহিদা বাড়তেই থাকে। মরার আগ পর্যন্ত মানুষ চাইতেই থাকে। যেহেতু মানুষের এই চাহিদা কখনও পূরণ হয় না—এজন্য তা সীমিত রাখার মধ্যেই মানব জীবনে শান্তি। ইসলামও মানুষকে চাহিদা সীমিত রাখার কথাই বলেছে।

বিস্তারিত পড়ুন …

মানব সত্তায় আত্মার গুরুত্ব

মানুষের সত্তায় আত্মা হলো একটি শাসক শক্তি, যা মানুষের পুরো সত্তায় সদাসর্বদা নিজের কর্তৃত্ব গেড়ে রাখে। নিঃসন্দেহে এই শক্তিটা চিন্তা ও মস্তিষ্কের ওপরও বিজয়ী। মানবসত্তার বিভিন্ন অবস্থা তার আত্মাই নির্ণয় করে এবং নিয়ন্ত্রণ করে। মানুষের অনুভূতিশীল অঙ্গগুলোকে তখনই স্বয়ংসম্পূর্ণ বলা যায় যখন আত্মা এগুলোর বাস্তবায়ন করে। আর আত্মা যদি এসব গুণাবলী থেকে বঞ্চিত হয়, তখন অনুভূতিশীল অঙ্গগুলো পূর্ণতার স্তর অতিক্রম করতে পারে না।

বিস্তারিত পড়ুন …

মৃত্যুকে স্মরণ : জীবনকে আলোকিত করে

ইহকাল মানবজীবনের শেষ নয়। মৃত্যুর পরও মানুষের জন্য রয়েছে এক অনন্ত জীবন। প্রতিদিন আমাদের চোখের সামনে মানুষ মারা যাচ্ছে। এভাবে একদিন আমাদেরও মরতে হবে এবং দুনিয়া ছেড়ে চলে যেতে হবে। এ সম্পর্কে মহান আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘প্রত্যেককে মৃত্যুর স্বাদ আস্বাদন করতে হবে। আমি তোমাদেরকে মন্দ ও ভালো দ্বারা পরীক্ষা করে থাকি এবং আমারই কাছে তোমরা প্রত্যাবর্তিত হবে। (সূরা আম্বিয়া : ৩৫ নং আয়াত)।

বিস্তারিত পড়ুন …

ইস্তিখারা : একটি গুরুত্বপূর্ণ আমল

ইস্তিখারা ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ আমল। ইস্তিখারার শাব্দিক অর্থ কল্যাণ প্রার্থনা। যখন কেউ কোনো কাজ করার ইচ্ছে করবে, তখন সে কাজ সম্পর্কে চিন্তা-ভাবনা ও পরামর্শের পর আল্লাহ তায়ালার দরবারে কল্যাণ ও বরকতের জন্য দুই রাকাত নফল নামাজ পড়ে হাদিসে শেখানো দোয়া করবে। অর্থাত্ প্রত্যাশিত কর্মে কল্যাণ প্রার্থনা করবে, তারপর কাজে অবতীর্ণ হবে। এরূপ নামাজ ও দোয়া-প্রার্থনা করাকেই ইসলামের পরিভাষায় ইস্তিখারা বলা হয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

শাওয়াল মাসে নফল রোজার ফজিলত

আল্লাহ তাআলা মানুষের আত্মিক পরিশুদ্ধির এক সুবর্ণ সুযোগ হিসেবে ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের অন্যতম রোজাকে বান্দার জন্য নির্ধারণ করেছেন। রোজা মানুষের গুনাহমাফির মাধ্যমে বান্দাকে নিষ্কলুষ ও নির্ভেজাল করে। রোজার মাধ্যমে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বান্দার গুনাহ মাফ করে দেন। ধর্মপ্রাণ মুসলমান ব্যক্তি যাতে শুধু মাহে রমজানের ফরজ রোজা রেখে থেমে না যান, বরং তিনি কীভাবে সহজেই পূর্ণ বছরটা মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তাআলার প্রিয় বান্দা ও ভালোবাসার পাত্র হয়ে থাকতে পারেন এবং কী করে চিরস্থায়ী জান্নাতের বাসিন্দা হতে পারেন এবং পরকালে তিনি কীভাবে সফলকাম থাকতে পারেন রাসুলুল্লাহ (সা.) উম্মতের সামনে এই পথ সুস্পষ্ট করে দিয়ে গেছেন।

বিস্তারিত পড়ুন …

গিবত : জঘন্যতম অপরাধ

গিবত একটি সামাজিক অপরাধ। এ অপরাধের ক্ষতি অনেক দূর পর্যন্ত ব্যাপৃত। আজকাল খুব স্বাভাবিকভাবেই সমাজের সর্বত্র গিবত ছড়িয়ে যাচ্ছে। শুধু নারীরাই নয়, এ গিবত চর্চা পুরুষদের মাঝেও ব্যাপকভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে। যে যার মতো গিবত করে বেড়াচ্ছে—তা যেন কোনো পাপই নয়। অথচ গিবত একটি মারাত্মক অপরাধ এবং গোনাহের কাজ। আল্লাহপাক এ গিবতের অপকারিতা বর্ণনা করে তা ছেড়ে দিতে পবিত্র কোরআনের সূরা হুজরাতে নির্দেশ করেছেন।

বিস্তারিত পড়ুন …

রোজাদারের ঈদুল ফিতর

দীর্ঘ এক মাস সিয়ামের মাধ্যমে রোজাদারগণ তাকওয়া অর্জন, আত্মশুদ্ধি ও আত্মসংযমের যে সাধনা করেন, তারই পুরস্কার হচ্ছে ঈদুল ফিতরের আনন্দ-উৎসব। ঈদ শব্দের অর্থ বারবার ফিরে আসা। উৎসব বারবার ফিরে আসে বলে আরবি ভাষায় উৎসব বোঝাতে ঈদ শব্দ ব্যবহূত হয়েছে। আর ফিতর শব্দের অর্থ কোনো কিছু ভাঙা। রমজান মাসের শেষ রোজা ভাঙা তথা ইফতারের পর রোজাদার আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন। পুরো এক মাসের সিয়াম সাধনার পর শাওয়ালের চাঁদ দেখার মাধ্যমে বিশ্ব মুসলিমের দ্বারে দ্বারে এই আনন্দ উৎসব শুরু হয়ে যায়। বিশ্ব মুসলিমের সবচেয়ে বড় আনন্দ-উৎসব ঈদুল ফিতর।

বিস্তারিত পড়ুন …