ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

হজ বুদ্ধির ওপর হৃদয়ের প্রাধান্য

মানুষের জীবনে এমন নাজুক মুহূর্ত কখনও কখনও আসে যখন তাকে আপসহীন বিদ্রোহ ঘোষণা করতে হয় বুদ্ধির অনুশাসন ও মোড়লিপনার বিরুদ্ধে। নিজের হাতে গড়া আইন-কানুন, অভ্যস্ত জীবনের বাহ্যাড়ম্বর ও কৃত্রিমতাপূর্ণ পরিবেশ এবং গতানুগতিক সামাজিক বন্ধন ছিন্ন করে তাকে বেরিয়ে আসতে হয় আকল ও বুদ্ধির অব্যাহত গোলামির গণ্ডি থেকে। নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা বুদ্ধির কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে কয়েক মুহূর্তের জন্য হলেও সঁপে দিতে হয় হৃদয়ের হাতে।

বিস্তারিত পড়ুন …

বড়দের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান প্রসঙ্গ

মানবিক গুণাবলীর মধ্যে নির্মল আচরণ অন্যতম। সমাজে নিয়ম-শৃঙ্খলা, প্রেম-প্রীতি ও শ্রদ্ধা-সম্মানের এই মহত্ গুণে সুখ-শান্তি নেমে আসে। ইসলামে তাই মুরব্বিদের প্রতি সত্ আচরণ প্রদর্শনের তাগিদ দেয়া হয়েছে। সত্ স্বভাব বা সত্ আচরণের মাধ্যমেই আমরা জীবনের প্রতিটি কর্মক্ষেত্র সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে পারি। পরিবারের সদস্য হিসেবে আদব রক্ষা করা যেমন সবার উচিত, তেমনি আচরণের মাধ্যমেই মুরব্বিদের মর্যাদা ও সম্মান প্রদর্শন করা সবার কর্তব্য। মানুষের উত্তম স্বভাব এবং নিষ্ঠাচার পার্থিব বা পারলৌকিক জীবনকে করে সৌন্দর্যমণ্ডিত। পারস্পরিক সম্পর্ক এবং নিষ্ঠতা নির্ভর করে মানুষের আচরণের ওপর। সত্ আচরণই মানুষকে মহান ও মহীয়ান করে তোলে।

বিস্তারিত পড়ুন …

হজের বিধান ও অন্তর্নিহিত তাত্পর্য

আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘হজের জন্য রয়েছে সুবিদিত কয়েকটি মাস। তারপর যে কেউ এর মাঝে হজ স্থির করে নেয়, তার জন্য হজের সময়ে স্ত্রীর সঙ্গে আবরণহীন হওয়া গুনাহ আর কলহ-বিবাদ করা জায়েজ নয়। তোমরা যা কিছু উত্তম কাজ কর, তা আল্লাহ তায়ালা জানেন। আর তোমরা পাথেয় সঙ্গে নিও, বস্তুত পাথেয়র শ্রেষ্ঠ উপকারিতা হলো হাতপাতা থেকে বেঁচে থাকা। হে বোধসম্পন্ন ব্যক্তিবর্গ! তোমরা আমাকেই ভয় কর।’ (সুরা বাকারা : ১৯৭)

বিস্তারিত পড়ুন …

ঈদুল ফিতরের তাৎপর্য

ঈদ অর্থ খুশি এবং ফিতর এসেছে ফিতরা থেকে। সুতরাং ঈদুল ফিতরের অর্থ দাঁড়ায় দানখয়রাতের মাধ্যমে পবিত্র ঈদের উৎসবকে আনন্দে উদ্ভাসিত করে তোলা। জাকাত-ফিতরার মাধ্যমে ধনী ও গরিবের মধ্যকার ভেদাভেদ দূরীভূত হয়। আর এতেই হয় মুসলিম হৃদয় উদ্বেলিত। ঈদুল ফিতরের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতায় পরস্পরের শুভেচ্ছা, আন্তরিকতা ও সহমর্মিতা বিনিময়ের মাধ্যমে মানবিক ও সামাজিক সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। আর এটাই হলো ঈদুল ফিতরের সামাজিক তাৎপর্য।

বিস্তারিত পড়ুন …

সদকাতুল ফিতর ও কিছু নতুন ভাবনা

ঈদুল ফিতরের সঙ্গে ফিতরার একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। কেননা ব্যক্তির ওপর ফিতরা ওয়াজিব হয় বলিষ্ঠ মতানুসারে ঈদের দিন সুবহে সাদিকের সময়। আর তা আদায় করতে হয় ঈদের নামাজের আগে। অবশ্য কেউ যদি ঈদের দিনের আগে সদকায়ে ফিতর আদায় করে দেয়, তাহলে এতে শরিয়তের পক্ষ থেকে কোনো আপত্তি নেই।

বিস্তারিত পড়ুন …

এতেকাফ : আল্লাহর নৈকট্য লাভের সোপান

মাহে রমজান আত্মশুদ্ধি, মানসিক উৎকর্ষ সাধন ও আল্লাহর নৈকট্য লাভের মাস। এ মাসেই মুমিন ব্যক্তি আধ্যাত্মিক সাধনায় চরম উৎকর্ষ লাভ করেন। এ মাসেই রয়েছে এমন একটি রাত, যা হাজার মাস থেকে উত্তম। সেই রাতের পূর্ণ সওয়াব অর্জন করার জন্য এতেকাফের গুরুত্ব ও উপকারিতা অপরিসীম। এতেকাফ আরবি শব্দ। এর অর্থ অবস্থান করা, বসা, ইবাদত করা প্রভৃতি। ইবাদতের নিয়তে মসজিদ বা নির্জন স্থানে বসা বা অবস্থান করাকে এতেকাফ বলে।

বিস্তারিত পড়ুন …

জাকাত দেয়া ফরজ

জাকাত ইসলামের মূল ভিত্তির অন্যতম তৃতীয় স্তম্ভ। ঈমানের পরে সালাত অতঃপর জাকাতের স্থান। ঈমানের দাবিদার সাহেবে নেসাব সবার ওপর জাকাত ফরজ। জাকাত শুধু রমাদান (রোজার) মাসেই ফরজ নয়। জাকাত সারা বছরই ফরজ। যখন থেকে বা যে মাসের যে তারিখ থেকে যিনি সাহেবে নেসাব হবেন বা জাকাত দেয়ার যোগ্যতা অর্জন করবেন বা জাকাত দেয়ার মতো অর্থসম্পদের মালিক হবেন, তখন থেকে চন্দ্র বর্ষের হিসেবে এক বছর পূর্ণ হলেই জাকাত দিতে হবে। এটি বছরের মহররম মাস থেকে জিলহজ মাসের মধ্যে যেকোনো মাসেই হতে পারে।

বিস্তারিত পড়ুন …

মুত্তাকির মর্যাদা অনেক

আমরা মুত্তাকি হতে পারছি না বিধায় ইহুদি-খ্রিস্টানদের মতো বিকল্প পথে মর্যাদার সন্ধান করে ফিরছি। আর এ জন্য আমরাও বংশ, বর্ণ, ভাষা, দেশ এবং জাতীয়তার ভিত্তিতে মর্যাদার বৃত্ত গড়ে তুলেছি। এ নির্দিষ্ট বৃত্তের মধ্যেই আমাদের সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সব কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়। ফলে সার্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমরা ইহুদি-খ্রিস্টানদের আজ্ঞাবহ সাজতে বাধ্য হচ্ছি। অথচ তাকওয়ার মতো মানবীয় উন্নততর গুণের অধিকারীদের জন্য দুনিয়া ও আখিরাতের সব কল্যাণের ভাণ্ডার সংরক্ষিত রয়েছে বলে আল কোরআনে উল্লেখ রয়েছে।

বিস্তারিত পড়ুন …

জাকাতগ্রহিতাকে স্বাবলম্বী করুন

জাকাত ইসলামের পঞ্চ ভিত্তির একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভিত। জাকাত শব্দের আভিধানিক অর্থ পবিত্র ও বৃদ্ধি। হিজরি দ্বিতীয় সনে মতান্তরে চতুর্থ সনে জাকাত ফরজ হয়। এর আগেও জাকাতের বিধান ছিল। তবে জাকাতের অংশ নির্ধারিত ছিল না। ইসলাম জাকাত অনুমোদন করে সারা বিশ্বের মানুষের মাঝে ভ্রাতৃত্বের সুস্পষ্ট স্বাক্ষর রেখেছে। জাকাতের দ্বারা ধনী ও দরিদ্রের মাঝে কিভাবে বন্ধুত্বের সেতুবন্ধ হয় তা মহানবী সা: বাস্তবে দেখিয়ে গিয়েছেন। পরস্পরের এ বন্ধুত্বকে ইসলামের মহান আদেশ হিসেবে ঘোষণা করেছে। জাকাত সাম্যের জন্য আর্থিক বুনিয়াদ, সমাজ কল্যাণের চাবিকাঠি, রাষ্ট্রীয় উন্নয়নের পৃষ্ঠপোষক।

বিস্তারিত পড়ুন …

মধুর প্রতিদান কোরআন তেলাওয়াতে

কোরআন তেলাওয়াত একটি পুণ্যময় ইবাদত। ধর্মপরায়ণ লোকেরা কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অতি উত্তম পন্থায় আল্লাহ তায়ালার নৈকট্য অর্জন করে। রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘নিশ্চয়ই এ কোরআন আল্লাহর ভোজসভা, তোমরা সথাসাধ্য আল্লাহর ভোজসভায় উপস্থিহ হও। কোরআন আল্লাহর রজ্জু, সুস্পষ্ট আলো এবং উপকারী চিকিত্সা। যে কোরআনকে আঁঁকড়ে ধরবে, সে পাপ-পঙ্কিলতা ও অপবিত্রতা থেকে রক্ষা পাবে। যে কোরআন অনুসরণ করবে সে নাজাত পাবে, সে পথভ্রষ্ট হবে না বরং আল্লাহর নিয়ামত ও সন্তুষ্টি পাবে। সে বাঁকা পথে যাবে না বরং সহজ সরল পথে পরিচালিত হবে। (মিশকাত)

বিস্তারিত পড়ুন …