ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

চাই নামাজ উপযোগী কোরআন শিক্ষা

ঈমানদার মুসলমান হলেও আমাদের অনেকে—১. যথাযথ সহিহভাবে কোরআন পড়তে জানেন না। শৈশবে শিখলেও পরবর্তীকালে নানাবিধ ব্যস্ততার কারণে না পড়ায় এখন মাঝে মধ্যে পড়লেও আগের মতো আর সহিহ-শুদ্ধ হয় না।

২. কোরআন আগে শিখলেও না পড়ার কারণে ভুলে গেছেন।

৩. ভুলে গেছেন মনে করে এখন আর কোরআন পড়েন না এবং সহিহ-শুদ্ধতা যাচাইয়ের ব্যাপারে কারও শরণাপন্নও হন না বা কোনো পদক্ষেপও গ্রহণ করেন না এবং

৪. এমনও অনেকে আছেন যারা কোরআন পড়া মোটেই শিখেননি, কোরআন পড়তেই জানেন না।

বিস্তারিত পড়ুন …

সালাম বিনিময়ের ফজিলত

salamতিনি ছিলেন উম্মতের প্রতি অনুরাগী। ছোট-বড় সবাইকে সালাম দিতেন। কেউ তাকে আগে সালাম দেয়ার সুযোগ পেত না। সালামকালে মুখে মিষ্টি হাসির রেখা লেগে থাকত। আরবি প্রবাদ আছে, ‘আগে সালাম পরে কালাম’। এ ছাড়া কথা বলার আগে সালাম বিনিময় করার প্রতি রাসূল সা: সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছেন। সালামে রয়েছে অনেক ফজিলত। যে ব্যক্তি দৈনিক ২০ জনকে সালাম দেবে ওই দিন সে ইন্তেকাল করলে তার জন্য জান্নাত ওয়াজিব। যে ব্যক্তি আগে সালাম দেবে তার জন্য জান্নাতে একটি পরওয়ানা লেখা হবে। আগে সালাম দেয়ার দ্বারা অহঙ্কার (বড়ত্ব ভাব) দূর হয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

কোরআনের দৃষ্টিতে সফলতার কিছু আমল

ফালাহ ও সফলতা শব্দ দুটি কোরআন ও হাদিসের বহু ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়েছে। দুনিয়াবি দৃষ্টিকোণ থেকে সফলতা হচ্ছে সব মনোবাঞ্ছা পূরণ হওয়া, সব ধরনের দুঃখ-কষ্ট থেকে বেঁচে থাকা এবং কোনো অবাঞ্ছিত অবস্থার সম্মুখীন না হওয়া। তবে মানুষের প্রকৃত সফলতা হচ্ছে ইহলৌকিক ও পারলৌকিক সফলতা। আর এই সফলতা অর্জনের জন্য সাতটি গুণ অর্জনের ভূমিকা অনেক বড়।
প্রথম গুণ : নামাজে খুশু-খুজু তথা বিনয়, নম্রতা ও স্থিরতা অর্জন করা। নামাজের অন্য রুকনগুলো হচ্ছে দেহের সমতুল্য, আর ইখলাস ও খুশু-খুজু হচ্ছে প্রাণতুল্য। তাই নামাজের খুশু-খুজুকে মুমিনের সফলতার সর্বপ্রথম শর্ত হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

বিস্তারিত পড়ুন …

স্বপ্নে রাসূলুল্লাহ সা:-এর দর্শন ও তাৎপর্য

মানুষ ঘুমিয়ে থেকে এমন অনেক কিছু দেখে, যা জাগ্রত অবস্থায় দেখে না। একে খাব বা খোয়াব বলা হয়। খুলাসাতুত তাফসির গ্রন্থে রয়েছে- স্বপ্নে মানুষের রূহ ঊর্ধ্বজগৎ ও নিম্নজগতে ভ্রমণ করে এবং জাগ্রতাবস্থায় যা দেখা যায় না, তা দেখতে থাকে। একে হিছছে রূহানি বা আত্মিক অনুভূতি বলা যায়। হিছছে জিসমানি বা শারীরিক অনুভূতি দ্বারা শুধু দৃশ্যমান বিষয় অনুধাবন করা যায়। পান্তরে হিছছে রূহানির মাধ্যমে দৃশ্যমান ও অদৃশ্য উভয় অবস্থা অনুধাবন ও অনুভব করা যায়।

বিস্তারিত পড়ুন …

শীতবস্ত্র বিতরণ এবং খেদমতে খাল্ক

winter-cllothবিশ্বমানবতার ধর্ম হিসেবে মানবতার ব্যাপক কল্যাণ কামনা ও বাস্তবায়ন ইসলামের নির্দেশনাগুলোর একটি মৌলিক নির্দেশ। বিশ্বমানবতার সংহতি বিধান করা ইসলামী আকিদা, বিশ্বাস ও কর্মনীতির একটি মজ্জাগত বিষয়। বিশেষ করে সুবিধাবঞ্চিত, বিপদগ্রস্ত ও সাহায্যপ্রার্থী প্রতিটি মানুষের প্রতি এগিয়ে যাওয়া, তাদের প্রয়োজনীয় সাহায্য-সহযোগিতা নিশ্চিত করার প্রতি ইসলামের রয়েছে নিরন্তর উৎসাহ। এ মহৎ কর্মে রয়েছে ইসলামের সুস্পষ্ট নির্দেশ ও কার্যকর নীতিমালা। ইসলাম মানুষের প্রতি মানুষের সংহতি প্রকাশের বিষয়টিকে একটি সৎ ও মহৎ কর্ম হিসেবে নির্ধারিত করেছে এবং এ কর্মটিকে ব্যক্তির ঈমান-ইসলামের পরিপূর্ণতার পূর্বশর্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। অন্যের প্রতি আন্তরিক সহানুভূতি ও মমত্ববোধ প্রদর্শন করাকে ইসলামের মূল স্তম্ভ সালাত-সিয়ামের অনুরূপ মৌলিক ইবাদত হিসেবে বিধিবদ্ধ করা হয়েছে।

বিস্তারিত পড়ুন …

আল্লাহর প্রিয় স্থান

আল্লাহর প্রিয় স্থানআল্লাহ পাক বলেন, ‘আল্লাহ ও আখেরাতের প্রতি ঈমান আনয়নকারীরাই আল্লাহর মসজিদসমূহ সরগরম রাখে’ (সূরা তওবা : ১৮)। রাসূলুল্লাহ সা: বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহর উদ্দেশ্যে একটি মসজিদ নির্মাণ করবে আল্লাহ তার জন্য জান্নাতে একটি ঘর নির্মাণ করবেন’ (বুখারি, মুসলিম ওসমান রা:)।

মসজিদ মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত পবিত্রতম স্থান, যাকে কেন্দ্র করে গোটা মুসলিম সমাজ পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হওয়া উচিত।

বিস্তারিত পড়ুন …

পরহেজগার মানুষের সংস্পর্শ

আলেম সম্প্রদায় উচ্চমর্যাদার অধিকারী। সূরা তাওবার ১২২ নম্বর আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘বিশ্বাসীদের সকলের একসাথে অভিযানে বের হওয়া সঙ্গত নয়, ওদের প্রত্যেক দলের এক অংশ বহির্গত হয় না কেন, যাতে তারা দ্বীন (ধর্ম) সম্বন্ধে জ্ঞানানুশীলন করতে পারে এবং ওদের সম্প্রদায়কে সতর্ক করতে পারে, যখন তারা তদের নিকট ফিরে আসবে যাতে তারা সতর্ক হয়।’

বিস্তারিত পড়ুন …