ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

রোজায় স্বাস্থ্যসম্মত সেহরি ও ইফতার

রোজা শুধু আত্মশুদ্ধির মাসই নয়, এ মাস আত্মনিয়ন্ত্রণেরও। নিজেকে একটি নির্দিষ্ট নিয়মে পরিচালিত করার মাধ্যমে শরীরে প্রতিষ্ঠিত হয় শৃঙ্খলা। রোজার সময় সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার থেকে বিরত থাকার বিষয়টি শরীরের ওপর যে প্রভাব ফেলে, তা কাটিয়ে ওঠার জন্য এ সময়ে শরীরকে চালাতে হবে ভিন্ন নিয়মে। বিশেষ করে এ সময়ে খাবারদাবারে আনতে হবে বিশেষ পরিবর্তন। ঐতিহ্যগতভাবে আমরা সেহরি ও ইফতারে যেসব খাবার গ্রহণ করে থাকি সেগুলোর সবই যে যথাযথ তা কিন্তু নয়। এ সব খাবারের মধ্যে কিছু খাবার রয়েছে যা স্বাস্থ্যসম্মত নয়। আবার কিছু খাবার আছে যেগুলো স্বাস্থ্যসম্মত কিংবা পুষ্টিকর খাবার হলেও সময়োচিত নয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

রমজানে খাদ্য হোক ফরমালিনমুক্ত

ফরমালিন (-CHO-)n হলো ফর্মালডিহাইডের (HCHO) পলিমার। ফর্মালডিহাইড দেখতে সাদা পাউডারের মতো। পানিতে সহজেই দ্রবণীয়। শতকরা ৩০-৪০ ভাগ ফর্মালডিহাইডের জলীয় দ্রবণকে ফরমালিন হিসেবে ধরা হয়। ফরমালিন সাধারণত টেক্সটাইল, প্লাস্টিক, পেপার, রঙ, কনস্ট্রাকশন ও মৃতদেহ সংরণে ব্যবহৃত হয়। ফরমালিনে ফর্মালডিহাইড ছাড়াও মিথানল থাকে, যা শরীরের জন্য তিকর। লিভার বা যকৃতে মিথানল এনজাইমের উপস্থিতি প্রথমে ফর্মালডিহাইড এবং পরে ফরমিক এসিডে রূপান্তরিত হয়। দুটোই শরীরের জন্য মারাত্মক তিকর।

বিস্তারিত পড়ুন …

কুরআনের দাবি রমজানের হক

যে  মাসে মহাগ্রন্থ আল কুরআন নাজিল হয়েছে, সেই মাস মাহে রমজান। রামাদান আরবি শব্দ। আভিধানিক অর্থ বিরত থাকা, কঠোর সাধনা, আত্মসংযম ইত্যাদি। সাধারণত প্রভাতের সাদা আভা প্রকাশের সময় (সুবহে সাদিক) থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সব ধরনের পানাহার ও যাবতীয় ইন্দ্রিয় তৃপ্তি, অন্যায়-অপরাধ, পাপ কাজ থেকে বিরত থাকার কঠোর সাধনাকে সাওম বা রোজা বলা হয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

লাইলাতুন নিসফি মিন শাবান

রজব ও রমজান মাসের মধ্যবর্তী সম্মানিত একটি মাস শাবান, যা রমজানের পূর্বপ্রস্তুতি নেয়ার মাস। রাসূল সা: এ মাসে বেশি নফল সাওম পালন করতেন। উম্মুল মুমেনিন হজরত আয়েশা রা: থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি রাসূল সা:কে মাহে রমজান ছাড়া অন্য কোনো সময় পুরো মাসে রোজা রাখতে দেখিনি এবং শাবান মাস ছাড়া অন্য কোনো মাসে বেশির ভাগ দিন তাঁকে রোজা রাখতে দেখিনি। আরেক বর্ণনায় এসেছে, হজরত আয়েশা রা: বলেন, কোনো কোনো সময় রাসূল সা: পুরো শাবান মাসেই নফল রোজা রাখতেন। আবার কোনো কোনো সময় শাবান মাসের বেশির ভাগ দিন রোজা রাখতেন (বুখারি ও মুসলিম)।

বিস্তারিত পড়ুন …

শাবান : রমজানের প্রস্তুতির মাস

শাবান মাস অতি গুরুত্বপূর্ণ মাস। আরবি মাসের অষ্টম মাস। শাবান আরবি শব্দ-এর অর্থ শাখা-প্রশাখা। এ মাসে আল্লাহ মুমিন বান্দাদের বিভিন্ন ধরনের রহমত-বরকত দান করে থাকেন। এ কারণেই এ মাসকে শাবান মাস বলা হয়। এ ছাড়াও শাবান মাস রমজান মাসের পূর্ববর্তী মাস। রমজানের প্রস্তুতির ওপর নির্ভর করে কার রমজান মাস কেমন কাটবে। প্রস্তুতি ভালো না হলে বেশি ভালো যাবে না রমজান। সুতরাং রমজানের পূর্ণ প্রস্তুতি এ মাসেই নিতে হবে।

বিস্তারিত পড়ুন …

রোজাদারদের জন্য কিছু পরামর্শ

রমজানের এই সময়টিতে স্বভাবতই আমাদের দেহঘড়ির খাদ্য গ্রহণ প্রক্রিয়ায় বেশ কিছু পরিবর্তন আসে। এছাড়া আবহাওয়া ও শারীরিক অবস্থার কারণে রোজা রাখতে গিয়ে অনেকে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হন। যদিও মানসিকভাবে শক্ত থাকলে এবং মনে ধর্মীয় আত্মবিশ্বাস থাকলে এসব সমস্যার অনেকটাই সমাধান করা যায়। তবে রোজার এ সময়টিতে কারও খাদ্যাভ্যাস যেন তার জন্য সমস্যার কারণ হয়ে না দাঁড়ায়, সেজন্য কিছু টিপস নিম্নে পত্রস্থ হলো— বিস্তারিত পড়ুন …

ঈদুল ফিতরের তাৎপর্য

ঈদ অর্থ খুশি এবং ফিতর এসেছে ফিতরা থেকে। সুতরাং ঈদুল ফিতরের অর্থ দাঁড়ায় দানখয়রাতের মাধ্যমে পবিত্র ঈদের উৎসবকে আনন্দে উদ্ভাসিত করে তোলা। জাকাত-ফিতরার মাধ্যমে ধনী ও গরিবের মধ্যকার ভেদাভেদ দূরীভূত হয়। আর এতেই হয় মুসলিম হৃদয় উদ্বেলিত। ঈদুল ফিতরের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতায় পরস্পরের শুভেচ্ছা, আন্তরিকতা ও সহমর্মিতা বিনিময়ের মাধ্যমে মানবিক ও সামাজিক সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। আর এটাই হলো ঈদুল ফিতরের সামাজিক তাৎপর্য।

বিস্তারিত পড়ুন …

সদকাতুল ফিতর ও কিছু নতুন ভাবনা

ঈদুল ফিতরের সঙ্গে ফিতরার একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। কেননা ব্যক্তির ওপর ফিতরা ওয়াজিব হয় বলিষ্ঠ মতানুসারে ঈদের দিন সুবহে সাদিকের সময়। আর তা আদায় করতে হয় ঈদের নামাজের আগে। অবশ্য কেউ যদি ঈদের দিনের আগে সদকায়ে ফিতর আদায় করে দেয়, তাহলে এতে শরিয়তের পক্ষ থেকে কোনো আপত্তি নেই।

বিস্তারিত পড়ুন …

এতেকাফ : আল্লাহর নৈকট্য লাভের সোপান

মাহে রমজান আত্মশুদ্ধি, মানসিক উৎকর্ষ সাধন ও আল্লাহর নৈকট্য লাভের মাস। এ মাসেই মুমিন ব্যক্তি আধ্যাত্মিক সাধনায় চরম উৎকর্ষ লাভ করেন। এ মাসেই রয়েছে এমন একটি রাত, যা হাজার মাস থেকে উত্তম। সেই রাতের পূর্ণ সওয়াব অর্জন করার জন্য এতেকাফের গুরুত্ব ও উপকারিতা অপরিসীম। এতেকাফ আরবি শব্দ। এর অর্থ অবস্থান করা, বসা, ইবাদত করা প্রভৃতি। ইবাদতের নিয়তে মসজিদ বা নির্জন স্থানে বসা বা অবস্থান করাকে এতেকাফ বলে।

বিস্তারিত পড়ুন …

লাইলাতুল কদর

লাইলাতুল কদর বা মহামর্যাদাপূর্ণ রাত সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালার ঘোষণা হচ্ছে, ‘নিশ্চয়ই আমি এটি (আল কুরআন) নাজিল করেছি এক মর্যাদাপূর্ণ রাতে, (হে নবী!) আপনি জানেন কি! এ মর্যাদাপূর্ণ রাতটি কী? মর্যাদাপূর্ণ এ রাতটি হাজার মাসের চেয়ে উত্তম, এ রাতে ফেরেশতাগণ ও তাদের সরদার ‘রূহ’ (জিবরাইল আ:) সহ তাদের মালিকের সব ধরনের আদেশ ও বার্তা নিয়ে জমিনে অবতরণ করেন, সে আদেশ বার্তাটি হচ্ছে চিরন্তন প্রশান্তি, তা ঊষার আবির্ভাব পর্যন্ত অব্যাহত থাকে’ (সূরা আল কদর : ১-৫)।

বিস্তারিত পড়ুন …