ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

কবরে সওয়াব পাওয়ার আমল

মানবজীবনে দু’টি অধ্যায় রয়েছে। একটি দুনিয়া ও অপরটি আখেরাত। আমরা এ জগতে যেসব আমল করব পরকালে বা আখেরাতে তার ফলাফল লাভ করব। দুনিয়াতে মন্দ কাজ করলে পরকালে তারও প্রতিদান পাবো। প্রশ্ন হচ্ছে, আমরা আমল করব কোন পর্যন্ত? আমরা মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমল করার ক্ষমতা রাখি। তার পরে আর রাখি না। কাজেই মালাকুল মউত আসার সাথে সাথে আমাদের সব ইবাদতের রাস্তা বন্ধ হয়ে যাবে। তাই এমন কিছু আমল আমাদের করা প্রয়োজন, যা মৃত্যুর পরেও আমাদের সওয়াব পেতে সাহায্য করে।

বিস্তারিত পড়ুন …

পর্দা ও বাঙালি মুসলিম মানস

নারীর প্রতি বৈষম্যপূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি অতি পুরনো। সে তুলনায় নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা আন্দোলন সেদিনের। বিভিন্ন কারণে নারী তার প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হলেও ইউরোপ-আমেরিকার নারীমুক্তি আন্দোলন মূলত ধর্মকেই এর জন্য দায়ী করেছে।

বিস্তারিত পড়ুন …

বিয়ের জন্য কেমন প্রস্তুতি চাই

biyeবিয়ের প্রস্তুতি বলতে সাধারণত আমরা বুঝি টাকা-পয়সা জোগাড় করা বা বিয়ের প্রয়োজনীয় সাজসরঞ্জাম কেনাকাটা ইত্যাদি। বাস্তবে বিয়ের প্রস্তুতি হলো বিয়ে-পরবর্তী বিরূপ পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করা। বিয়ে করার পর অনেককেই প্রতিকূল পরিস্থিতি ও বিভিন্ন পেরেশানিতে পড়তে হয়। পারিবারিক দ্বন্দ্ব এর অন্যতম। বিয়ে করার সাথে সাথেই অনেকের বাবা-মা, ভাইবোন, আত্মীয়স্বজনের সাথে মানসিক দূরত্ব সৃষ্টি হয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

সমাজ ও মানবজীবন

somajযে সমাজ মহাগ্রন্থ আল কুরআন ও বিশ্বনবী মুহাম্মাদ সা:-এর সুন্নাহর ওপর প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত হয় সেই সমাজকেই কেবল প্রকৃত ইসলামী সমাজ বলা যেতে পারে। অর্থাৎ সমাজের মানুষের চিন্তাচেতনা, শিল্প-সংস্কৃতি, আচার-অনুষ্ঠান, আইন-কানুন তথা সব কাজের মধ্য দিয়েই যারা প্রমাণ করে যে, তারা একমাত্র আল্লাহরই গোলামি করে যাচ্ছে- এমন সমাজই ইসলামী সমাজ। আর কালেমা শাহাদাত এ ধরনের আল্লাহর দাসত্বমূলক জীবনব্যবস্থা গ্রহণ করে নেয়ার মৌখিক স্বীকৃতি দেয় এবং বাস্তবজীবনে তা পালনের পদ্ধতি নির্ধারণ করে।

বিস্তারিত পড়ুন …

কবর, মাযার ও মৃত্যু সম্পর্কীত কতিপয় বিদ’আত

কবর, মাযার ও মৃত্যু সম্পর্কীত কতিপয়
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ,আকাশে ঘন কালো মেঘের আড়ালে অনেক সময় সূর্য্যের কিরণ ঢাকা পড়ে যায়। মনে হয় হয়ত আর সূর্য্যের মুখ দেখা যাবে না। কিন্তু সময়ের ব্যাবধানে নিকশ কালো মেঘের বুক চিরে আলো ঝলমল সূর্য্য বের হয়ে আসে। ঠিক তেমনি বর্তমানে আমাদের সমাজের দিকে তাকালে দেখা যাবে বিদ’আতের কালিমা ইসলামের স্বচ্ছ আসমানকে ঘিরে ফেলেছে। যার কারণে কোন কাজটা সুন্নাত আর কোন কাজটা বিদ’আত তা পার্থক্য করাটাই অনেক মানুষের জন্য কঠিন হয়ে গেছে। যা হোক শত রকমের বিদ’আতের মধ্য থেকে এখানে শুধু কবর, মাযার ও মৃত্যু সম্পর্কীত কয়েকটি প্রসিদ্ধ বিদ’আত তুলে ধরা হল। যদিওএ সম্পর্ক আরও অনেক বিদ’আত আমাদের সমাজে প্রচলিত আছে। যদি এতে আমাদের সমাজের বিবেকবান মানুষের চেতনার দুয়ারে সামান্য আঘাত হানে তবেই এ প্রচেষ্টা সার্থক হবে।

বিস্তারিত পড়ুন …

আসুন নিজের দোষ অন্বেষণ করি

nijমহাগ্রন্থ আল কোরআনের সূরা হুজরাতের এগার নম্বর আয়াতে ঘোষণা করা হয়েছে, হে মুমিনগণ কোনো পুরুষ যেন অপর কোনো পুরুষকে উপহাস না করে; কেননা যাকে উপহাস করা হয় সে উপহাসকারী অপেক্ষা উত্তম হতে পারে এবং কোনো নারী অপর কোনো নারীকেও যেন উপহাস না করে; কেননা যাকে উপহাস করা হয় সে উপহাসকারিনী অপেক্ষা উত্তম হতে পারে। তোমরা একে অপরের প্রতি দোষারোপ করো না এবং তোমরা একে অপরকে মন্দ নামে ডেকো না; ঈমানের পর মন্দ নাম অতি মন্দ। সূরা হুজরাতের বার নম্বর আয়াতে বলা হয়েছে’ হে মুমিনগণ! তোমরা অধিকাংশ অনুমান থেকে দূরে থাক; কারণ অনুমান কোনো কোনো ক্ষেত্রে পাপ এবং তোমরা একে অপরের গোপনীয় বিষয় সন্ধান করো না এবং একে অপরের পশ্চাতে নিন্দা করো না। তোমাদের মধ্যে কি কেউ তার মৃত ভ্রাতার গোশত খেতে চাইবে? দেখুন, পবিত্র কোরআনে গিবত করাকে আপন মৃত ভাইয়ের গোশ্ত খাওয়ার সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। বর্তমান সময়ে ব্যক্তি পরিবার সমাজ রাষ্ট্র অফিস-আদালত থেকে শুরু করে সর্বত্রই গিবত ও পরনিন্দার চর্চার প্রতিযোগিতা হয়।

বিস্তারিত পড়ুন …

প্রতিদিন ৭০ বার কবর আমাদের ডাকছে

kaborআমরা সব সময় সামনের কথাই ভাবি। সামনের দিনগুলো কীভাবে চলবে? কত টাকা উপার্জন করব, আমার ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল করার জন্য আরও কী কী করা দরকার, সুখে-শান্তিতে দুনিয়ায় থাকতে হলে আরও কী কী করা যেতে পারে? এসব নিয়েই আমরা ভাবি। কিন্তু আমাদের সামনে যে অনন্ত জীবন পড়ে আছে, তার জন্য আমরা কতটুকু পরিকল্পনা করি? আমাদের কোনো প্রিয়জন মারা গেলে আমরা শোক প্রকাশ করি। কেউ কেউ পাগলের মতো প্রলাপ বকতে থাকি। কেউ বা বুক চাপড়িয়ে, পোশাক-পরিচ্ছদ ছিঁড়ে, মাথায় ধুলামাটি ছিটিয়ে কিংবা মাটিতে গড়াগড়ি করে বিলাপ করতে থাকি।

বিস্তারিত পড়ুন …

মহানবীর প্রতি সাহাবিদের ভালোবাসা

ভালোবাসা। একটি শব্দ চার অক্ষরের। কী এক জাদু এ শব্দে! কত গভীরতা, কত মমতা, কত শক্তি! এ শব্দের ওপর ভিত্তি করে রচিত হয়েছে লাখো ঘটনাপ্রবাহ। রচিত হয়েছে অসংখ্য গান, সাহিত্য। হয়নি কী! বিশ্বময় ভালোবাসা না থাকলে কোনো কিছু টিকে থাকা অসম্ভব। আর সেই ভালোবাসা যদি প্রিয় নবীজী সা:-এর জন্য হয় তবে তাতে সিক্ত হয় মন-মনন। প্রশান্তিতে ভরে ওঠে দেহ-মন। ভেজে আঁখি, ভেসে ওঠে কল্পনার ছবি। পৃথিবীতে যারাই রাসূলকে ভালো বেসেছেন, অনুসরণ করেছেন তারাই ধন্য হয়েছেন। সূরা আল্ ইমরানের ৩১ নম্বর আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘(হে নবী!) বলুন, আল্লাহকে ভালোবাসতে হলে আমাকে অনুসরণ করো, তাহলে আল্লাহ তোমাদের প্রিয় করে নেবেন।’

বিস্তারিত পড়ুন …

ইন্টারনেটে আল্লাহর পথে দাওয়াত

​ বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষের ফলে পৃথিবী এখন হাতের মুঠোয়। মুহূর্তেই চিঠি আদান-প্রদান, ভিডিও কনফারেন্সসহ কত কী! বাংলা ইংরেজি আরবিসহ বিভিন্ন ভাষায় কুরআনের তাফসির পড়া যাচ্ছে। দুর্লভ যেসব কিতাব সংগ্রহ করা অনেক কষ্টসাধ্য সেসব কিতাব এখন মাউসের এক কিকেই এসে যাচ্ছে। হাজার হাজার কিতাবের মাকতাবাতুশ শামেলা একটি ছোট্ট মেমোরিতেই রাখা যাচ্ছে। সবই সম্ভব হচ্ছে বিজ্ঞানের চরম উন্নতির ফলে। বিজ্ঞানের সর্বাধুনিক ও সর্বাধিক ক্রিয়াশীল বিস্ময়কর আবিষ্কারই ইন্টারনেট।

বিস্তারিত পড়ুন …

আল্লাহ সব কিছুই জানেন

পরিভাষায় সুন্নাতের অর্থ হচ্ছে, রাসূল সা:-এর জীবনাদর্শ, যা তাঁর কথা, কাজ ও অনুমোদনের সমষ্টি। কুরআন ও হাদিসে সুন্নাত পালনের জন্য জোর তাকিদ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সুন্নাত পালনে উপো করলে বা অবহেলা প্রদর্শন করলে এর ভয়াবহ পরিণামের কথাও আল্লাহ দ্ব্যর্থহীনভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। কারণ রাসূল সা:কে অনুসরণ করা, অনুকরণ করা ঈমানের দাবি।

বিস্তারিত পড়ুন …