ইসলাম ও আমাদের জীবন

বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

ইসলাম ও আমাদের জীবন - বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে নেয়া কিছু লেখা …

কুধারণা ইসলামে নিষিদ্ধ

মানুষ সাধারণত অন্যের ছিদ্রান্বেষণ করে থাকে, নিজের দোষ দেখে না। মানুষ নিজেকে বড় মনে করে আর অন্যদের তুচ্ছ মনে করে। অথচ অন্যের দোষ তালাশ করা কিংবা অন্যের প্রতি কুধারণা পোষণ করা গোনাহ।পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘নিশ্চয়ই কোনো কোনো ধারণা গোনাহ’। হাদিস শরিফে আছে, মহানবী সা: কাউকে দোষারোপ করতেন না এবং কারো অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে অসুন্ধানে লিপ্ত হতেন না।

এমনকি মহানবী সা: কুধারণা ও অপবাদের ক্ষেত্রগুলো থেকেও বেঁচে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি ইরশাদ করেন, ‘তোমরা অপবাদের ক্ষেত্রগুলো থেকে বেঁচে থাকো।’ হাদিস শরিফের দ্বারা বোঝা যায়, যেখানে গেলে মানুষ সন্দেহ করবে সেখান থেকে নিরাপদ দূরত্বে থাকা দরকার। মহানবী সা: স্বয়ং কাজের মাধ্যমে এ শিক্ষা প্রদান করেছেন। হাদিস শরিফে আছে, একবার মহানবী সা: মসজিদে নববিতে এতেকাফরত ছিলেন। তিনি প্রতি বছর রমজানের শেষ দশকে এতেকাফ করতেন। উম্মুল মুমিনীন হজরত সাফিয়া রা: তাঁর সাথে দেখা করতে মসজিদে এলেন। সময়টা ছিল রাত। এসে তিনি কিছু সময়ের জন্য নবীজীর কাছে বসলেন। পরে যখন চলে যেতে উদ্যত হলেন, তখন নবীজী তাঁকে বিদায় জানানোর জন্য মসজিদের দরজায় এলেন।

সে সময় পাশ দিয়ে দু’জন সাহাবিকে পথ অতিক্রম করতে দেখে নবীজী তাদের উচ্চৈঃস্বরে ডেকে কাছে এনে বললেন ‘এই মহিলা, আমি যাকে বিদায় জানাচ্ছি, আমার স্ত্রী সাফিয়া।’ শুনে সাহাবিদ্বয় বললেন, ‘হে আল্লাহর রাসূল! এ আপনি কী বললেন।’ মহানবী সা: বললেন, ‘শয়তান মানুষের রক্তের সাথে মিশে শিরায় শিরায় চলাচল করে থাকে।’

কাজেই আমার মনে আশঙ্কা জাগল, পাছে তোমাদের অন্তরে এই কুধারণা জন্মে যায় কি না যে, আল্লাহর রাসূলের সাথে এই মহিলা আবার কে? সে জন্য আমি বিষয়টি খোলাসা করে দিলাম, এই মহিলা আমার স্ত্রী।

আল্লাহর রাসূল সা:-এর প্রতি কারো মনে কুধারণা জন্মাত না যে, তিনি কোনো পরনারীর সাথে কথা বলছেন। কিন্তু তার পরও তিনি উম্মতকে হাতে-কলমে শিক্ষা দিলেন তোমরা সব সময় অতি যতেœর সাথে সন্দেহের ক্ষেত্রগুলো থেকে বেঁচে থাকবে। এমনই একটি সন্দেহের সম্ভাবনা নিরসনের জন্য তিনি সাহাবিদের ডেকে বললেন এই মহিলা আমার স্ত্রী।

এই আমল দ্বারা তিনি আমাদেরকে শিক্ষা দান করেছেন। আবার কথার দ্বারাও শিখিয়ে দিয়েছেন এমন কর্মনীতি তোমরা অবলম্বন কোরো না, যার ফলে তোমাদের ব্যাপারে মানুষের মনে কুধারণা জন্মাতে পারে।